নাটকীয় প্রত্যাবর্তন, শফীপুত্র আনাস মাদানীর স্থলে বাবুনগরী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, রবিবার
প্রকাশিত: ০৮:৪৮ আপডেট: ১২:০৫

নাটকীয় প্রত্যাবর্তন, শফীপুত্র আনাস মাদানীর স্থলে বাবুনগরী

নাটকীয় প্রত্যাবর্তন ঘটলো হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীর। দেশের বৃহৎ কওমী মাদরাসা দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদরাসা থেকে অব্যাহতি দেয়া মাওলানা আনাস মাদানীর স্থলে নতুন শিক্ষা সচিব হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীকে। একই সাথে বাবুনগরীকে শাইখুল হাদিসের দায়িত্বও দেয়া হয়। 

এছাড়াও মাদরাসার পরবর্তী মহাপরিচালক নির্বাচিত না হওয়া পর্যন্ত মাদ্রাসা পরিচালনা করতে তিন সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়েছে। পাশাপাশি মাদরাসার শিক্ষার্থী আন্দোলন খতিয়ে দেখতে একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে। 

আল্লামা আহমদ শফীর দাফনের পর শনিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) রাতে হাটহাজারী মাদ্রাসার মজলিশে শুরা কমিটি এসব সিদ্ধান্ত নেন।

হাটহাজারী মাদ্রাসার শুরা সদস্য মাওলানা সালাউদ্দিন নানুপুরী বলেন, ‘শনিবার শুরা কমিটি কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তার মধ্যে রয়েছে মাদরাসা পরিচালনার জন্য কমিটি গঠন, শুরা কমিটিতে নতুন করে পাঁচজন নিয়োগ এবং তদন্ত কমিটি গঠন অন্যতম।

মজলিশে শুরা কমিটিতে উপস্থিত একাধিক সূত্র জানায়, আল্লামা আহমদ শফীর মৃত্যু মাদরাসা পরিচালনা ও নানান বিষয়ে আলোচনা করতে শনিবার বিকেলে বৈঠকে বসেন মজলিশে শুরা কমিটি। এতে শুরা কমিটির আট সদস্য উপস্থিত ছিলেন। দীর্ঘ আলোচনার পর পরবর্তী মহাপরিচালক নির্বাচিত না হওয়া পর্যন্ত মাদরাসা পরিচালনার জন্য তিন সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘটন করা হয়। যাতে রাখা হয় মাদ্রাসার সহকারী পরিচালক মাওলানা শেখ আহমদ, মুফতি আবদুস সালাম এবং মাওলানা ইয়াহিয়াকে। তারা যৌথভাবে মাদরাসা পরিচালনার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন। মাদ্রাসা থেকে অব্যাহতি দেয়া মাওলানা আনাস মাদানীর স্থলে শিক্ষা সচিব হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীকে। একই সাথে বাবুনগরীকে শাইখুল হাদিসের দায়িত্বও দেয়া হয়। 

মৃত্যুজনিত কারণে শূন্য হওয়া পাঁচ জনকে শুরা সদস্যও নিয়োগ দেয়া। নতুন করে যুক্ত হওয়া শুরা সদস্যরা হলেন, মাওলানা আবদুল মালেক, মাওলানা ফয়জুল্লাহ, মাওলানা আবদুল্লাহ, মাওলানা আহমদ শফী এবং মাওলানা হাফেজ সায়েদ হোসেন।

এছাড়া সম্প্রতি ঘটে যাওয়া ছাত্র আন্দোলনের ঘটনা তদন্ত করতে চার সদস্যের একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়। কমিটির সদস্যরা হলেন, মাওলানা শেখ আহমদ, আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী, মুফতি আবদুস সালাম এবং মাওলানা ইয়াহিয়াকে।

ব্রেকিংনিউজ/এসএ

bnbd-ads