৩ মাসের মধ্যে ওটিটি নীতিমালা চূড়ান্তের নির্দেশ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
১৮ জানুয়ারি ২০২১, সোমবার
প্রকাশিত: ০৪:৩৪ আপডেট: ০৫:০৯

৩ মাসের মধ্যে ওটিটি নীতিমালা চূড়ান্তের নির্দেশ

নেটফ্লিক্স, হইচই এর মতো ওভার দ্য টপ (ওটিটি) প্ল্যাটফর্ম নির্ভর কনটেন্ট প্রকাশ ও পরিবেশনের ওপর তদারকি, নিয়ন্ত্রণ ও রাজস্ব আদায়ে একটি নীতিমালা চূড়ান্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

সোমবার (১৮ জানুয়ারি) বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) ও তথ্য মন্ত্রণালয়কে ৩ মাসের মধ্যে এ নীতিমালা দাখিল করতে বিচারপতি জেবিএম হাসান ও বিচারপতি খায়রুল আলমের বেঞ্চ এ আদেশ দেন। 

এদিন বিটিআরসির পক্ষে প্রতিবেদন দাখিল করেন আইনজীবী খন্দকার রেজা-ই-রাকিব। আর পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) উপমহাপরিদর্শকের দেয়া প্রতিবেদনটি উপস্থাপন করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায়। রিটকারীর পক্ষে আদালতে শুনানি করেন আইনজীবী তানভীর আহমেদ। 

রিটকারী আইনজীবী জানান, বিশ্বের অনেক দেশ ওটিটি প্ল্যাটফর্ম থেকে কোটি কোটি টাকা ইনকাম করছে। কিন্তু বাংলাদেশ এ থেকে বঞ্চিত। এমনকি এই প্ল্যাটফর্মের কনটেন্টগুলো মনিটরিংয়ের কোনও ব্যবস্থা নেয়া হয় না। বিটিআরসির আইনজীবী বিষয়টি স্বীকার করেছেন। 

নেটফ্লিক্সসহ দেশি-বিদেশি ওটিটি প্ল্যাটফর্ম নিয়ন্ত্রণে সরকারের করা নীতিমালাটি চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে বলেও জানান তিনি। 

ওটিটি-নির্ভর বিভিন্ন ওয়েব প্ল্যাটফর্মে মাধ্যমে ‘অনৈতিক ও আপত্তিকর’ ভিডিও কনটেন্ট পরিবেশন রোধে ‘নিষ্ক্রিয়তা’ চ্যালেঞ্জ করে গত বছরের ১২ জুলাই হাইকোর্টে এ সংক্রান্ত রিট আবেদনটি করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী তানভীর আহমেদ। রিটে ওইসব প্ল্যাটফর্ম নিয়ন্ত্রণ-তদারকিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা চাওয়া হয়। 

রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে গেল বছরের ১৫ জুলাই আদালত ওটিটি-নির্ভর বিভিন্ন ওয়েব প্ল্যাটফর্ম থেকে ‘অনৈতিক ও আপত্তিকর’ কনটেন্ট ৭ দিনের মধ্যে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেন আদালত। সেইসঙ্গে ওটিটি প্ল্যাটফর্ম থেকে রাজস্ব আদায়ের বিষয়ে এক মাসের মধ্যে আদালতে প্রতিবেদন দাখিলেরও নির্দেশ দেয়া হয়। 

পাশাপাশি ওটিটি-নির্ভর বিভিন্ন ওয়েব প্ল্যাটফর্মে ‘অনৈতিক ও আপত্তিকর’ ভিডিও কনটেন্ট পরিবেশনের বিষয়ে অনুসন্ধান করে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ারও নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।

গেল বছর আগস্টে রিট আবেদনটি নিয়মিত বেঞ্চে উপস্থাপন হলে ৮ সেপ্টেম্বর শুনানি শেষে আদালত রুল জারি করেন। 

ওটিটি-নির্ভর বিভিন্ন ওয়েব প্ল্যাটফর্মে ‘অনৈতিক ও আপত্তিকর’ ভিডিও কনটেন্ট পরিবেশন রোধে বিবাদীদের নিষ্ক্রিয়তা কেন ‘বেআইনি ঘোষণা করা হবে না’, তা জানতে চাওয়া হয় রুলে। সেইসঙ্গে ওটিটি প্ল্যাটফর্ম তদারকির জন্য চূড়ান্ত নীতিমালা প্রণয়নে কেন নির্দেশ দেয়া হবে না, রুলে তা-ও জানতে চাওয়া হয়। 

পাশাপাশি ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব, তথ্যসচিব, সংস্কৃতিসচিব, বিটিআরসি চেয়ারম্যানসহ ৮ বিবাদীকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়।

এরপর বিটিআরসি ও পুলিশের পক্ষ থেকে দাখিলকৃত প্রতিবেদন আজ হাইকোর্টে উপস্থাপন করা হয়।

ব্রেকিংনিউজ/এমআর 

bnbd-ads