এদেশের অর্জন-কল্যাণের সঙ্গে আওয়ামী লীগ

রাহাত হুসাইন
৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, শুক্রবার
প্রকাশিত: ১২:৪২ আপডেট: ০১:৪৭

এদেশের অর্জন-কল্যাণের সঙ্গে আওয়ামী লীগ

আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। এর আগে টানা তিন মেয়াদে দলটির সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ২১তম জাতীয় সম্মেলনে দলের যু্গ্ম সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। ছিলেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতিও।

দীর্ঘদিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ সহকারী ছিলেন নাছিম। ১৯৮১ সালে মাদারীপুর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হওয়ার পরে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতি দায়িত্ব পালন করেছেন।  

সম্প্রতি দেশের জনপ্রিয় অনলাইন গণমাধ্যম ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি-এর মুখোমুখি হন এই রাজনীতিক। তার সঙ্গে আলাপচারিতায় উঠে আসে সমসাময়িক রাজনীতির নানা তথ্য-উপাত্ত। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন ব্রেকিংনিউজের স্টাফ করেসপন্ডেন্ট রাহাত হুসাইন।

ব্রেকিংনিউজ : আপনার রাজনীতিতে পথচলা শুরু হয় কিভাবে?

আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম: পরিবারের হাত ধরেই আমার রাজনৈতিক জীবন শুরু। আমার পিতা ও বড় ভাইয়েরা রাজনীতিতে আমাকে সচেতন করে তুলেছেন। শোষিত ও ধনাঢ্যের  মধ্যে ব্যবধান কমানোর জন্য জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের যে লক্ষ্য ছিল সেই চেতনা আমার মধ্যে আগেও কাজ করতো, এখনও করে। ধনী-গরিবের মধ্যে পার্থক্য কমানো উচিত বলে আমি বিশ্বাস করি। ধনী-গরিবের পার্থক্য কমানোর জন্য আমরা যারা রাজনীতি করি তাদের উদ্যোগ ও ভূমিকা থাকা দরকার। এই পার্থক্য কমাতে পারলেই বাংলাদেশ হবে জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা, সমৃদ্ধ বাংলা, আত্মনির্ভরশীল ও শোষণমুক্ত বাংলা।

ব্রেকিংনিউজ : আওয়ামী লীগের জন্য নতুন চ্যালেঞ্জ কী?

আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম : আগামী প্রজন্মের স্বপ্ন পূরণ। মানুষের আকাঙ্ক্ষা পূরণ। মানুষ কি চায়, তা পূরণে কাজ করা। সুশাসন প্রতিষ্ঠা, দুর্নীতিমুক্ত ও অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ দেশ গড়া। মানুষ সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত সমাজ চায়, শান্তি ও স্বস্তি চায়। এগুলো বাস্তবায়ন করাই বাংলাদেশের মতো একটি জনসংখ্যাধিক্য আয়তনের ছোট দেশে বিরাট চ্যালেঞ্জ বলে আমি মনে করি। আওয়ামী লীগের নেতা হিসেবে মনে করি যে, আওয়ামী লীগই পারবে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এদেশের মানুষের স্বপ্নপূরণ করতে। আমরা মানুষের স্বপ্নপূরণে যে কোনও চ্যালেঞ্জ নিতে পারি। অতীতে নিয়েছি এবং আগামীতেও নেবো। এদেশের অর্জনের সঙ্গে আওয়ামী লীগ, কল্যাণের সঙ্গেও আওয়ামী লীগ।

ব্রেকিংনিউজ : তৃণমূলে এমপি লীগ, ভাইলীগের মতো বলয়গুলো ভাঙার সম্ভাবনা রয়েছে কিনা? 

আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম : অবশ্যই এই বলয় ভাঙার চেষ্টা চলছে। আমি মনে করি এটা ভাঙার জন্য দলের ত্যাগী নেতাদের একটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। রয়েছে সাংবাদিকদেরও ভূমিকা। সব মিলিয়ে এ বলয় ভাঙার কাজ চলছে। এ বিপ্লব তো রাতারাতি হয়ে যাবে না। এটা আস্তে আস্তে হবে। হাইব্রিডরা কিন্তু এখন অনেক ক্ষেত্রেই থমকে গেছে। আমরা দলের ভেতর  থেকে শুরু করেছি। এসব বলয়ের কারণে আমাদের দলের তৃণমূল নেতাকর্মীরা হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েছিল। তারা কিন্তু এখন আশান্বিত হচ্ছে। তারা পুনরায় অ্যাক্টিভ হওয়ার চেষ্টা করছে। আমরা চাচ্ছি অ্যাক্টিভেনেসকে নার্সিং করতে। যাতে করে ভাইলীগ, এমপিলীগ দূর হয়ে যায়।

আর পার্র্টিতে লোকজন সংযুক্ত হবে এটাও স্বাভাবিক। সেক্ষেত্রে কিছুটা বলয় হতে পারে। আমরা তো ওই পার্টি না। আওয়ামী লীগে তো সব শ্রেণি-পেশার মানুষ আছে। এটা মাল্টিক্লাস অরগানাইজেশন। এই অরগানাইজেশনে ভালো মানুষ আসবে। তুলনামূলক কম ভালো কেউ আসলে তাকে কি বাদ দেয়া যাবে। মানুষটা কি রকম এটা কি কষ্টিপাথর দিয়ে যাচাই করার পদ্ধতি রাজনৈতিক দলের মধ্যে রয়েছে? চেষ্টা থাকবে, উদ্যোগ থাকবে। আমাদের উদ্যোগ আছে, আমাদের নেত্রী নিজেই এ উদ্যোগ নিয়েছেন। সারা বাংলাদেশের তৃণমূল আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সেন্টিমেন্টের সঙ্গে উনি সহমত পোষণ করে। উনি বুঝতে পারেন।

ব্রেকিংনিউজ : মেয়াদোত্তীর্ণ যে সমস্ত জেলার সম্মেলন হয়নি, ৬ মার্চের মধ্যে সেগুলোর সম্মেলন করে সফল হওয়া যাবে কি-না?

আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম : শতভাগ সফল হওয়া যাবে। সফল না হওয়ার তো কোনও কারণ নেই। মাত্র ২৮ দিনে ২৯ টি জেলায় সম্মেলন হয়েছে। এখনও আমরা একমাসে করবো। একমাসে কম্পিলিট না করতে পারলে, আবার আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেবো। সফল হবেই।

ব্রেকিংনিউজ : আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে কয়েকটি পদ এখনও খালি রয়েছে, এগুলো কবে নাগাদ পূরণ হবে?

আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম : নেত্রী একটু সময় নিচ্ছেন। কেন নিচ্ছেন? উনি বলেছেন, সময় নিলে কোথাও কোনো গ্যাপ হলে, ত্রুটি-বিচ্যুতি হলে সেগুলো ফিলআপ করা যায়। সেগুলো ফিলআপ সুন্দর হয়। যেমন সাঈদ খোকন; তাকে সদস্য পদ দেয়া হলো। ছেলেটা মেয়র ছিলো, এখন কোথাও নেই। ওকে একটা জায়গা দেয়া হলো। ঢাকার প্রথম মেয়রের সন্তান হিসেবে তাকে একটা সদস্য পদ দেয়া হয়েছে। তাদের পরিবারের সঙ্গে দলের ও মুক্তিযুদ্ধের অবদান রয়েছে। খালি না থাকলে দিতো কিভাবে? আওয়ামী লীগে তো আনন্দের সঙ্গে ঘোষণা করে পদ দেয়া যায় না।

ব্রেকিংনিউজ : স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ছিলেন, সংগঠনটির ভবিষ্যত নেতৃত্ব কেমন দেখছেন? 

আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম : স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাদের সঙ্গে যতটুকু আলাপ-আলোচনা হয়েছে আমরা আরও কিছু ভালো লোক খুঁজছি, বয়সে তরুণ, রাজনীতিতে পরিপক্বতা রয়েছে এমন। তাদেরকে সংযোজন করতে চাই। স্লোগান দিয়ে এসেই অনেকে নেতা হতে চায়। এদের নিয়ে সংগঠন করলে শেষে দেখা যাবে ক্যাসিনো-কাণ্ডের মতো হয়ে যাবে। দল নয়, যাদের আছে শুধুই ব্যবসায়িক চিন্তা-ভাবনা। এদের নিয়ে তো আর সংগঠন করা যাবে না।

ব্রেকিংনিউজ : সময় দিয়ে কথা বলার জন্য ধন্যবাদ।

আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম : আপনাকে ও ব্রেকিংনিউজ পরিবারকেও অসংখ্য ধন্যবাদ।

ব্রেকিংনিউজ/আরএইচ/এমআর

bnbd-ads