ব্যর্থতার মুখে জাপানের পারমাণু বিদ্যুৎ রফতানি পরিকল্পনা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: ০১:১২

ব্যর্থতার মুখে জাপানের পারমাণু বিদ্যুৎ রফতানি পরিকল্পনা

নির্মাণ ব্যয় বৃদ্ধি, কভিড-১৯ নিয়ন্ত্রণে আরোপিত বিভিন্ন পদক্ষেপের কারণে জাপান-যুক্তরাজ্যের নতুন একটি যৌথ বিনিয়োগের পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র বন্ধ হতে চলেছে। নির্মাণের দায়িত্ব পাওয়া জাপানি কোম্পানি হিটাচি প্রকল্প থেকে সম্পূর্ণভাবে বেরিয়ে যেতে চলায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। গতকাল বিষয়সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। 

এর মাধ্যমে জাপানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র রফতানির যে উচ্চাকাঙ্ক্ষী পরিকল্পনা করেছিলেন, তা আরেকবার ব্যর্থতার মুখ দেখবে। একই সঙ্গে যুক্তরাজ্যের পারমাণবিক জ্বালানি প্রযুক্তিও বড় ধাক্কা খাবে, যা মূলত বিদেশী বিনিয়োগের ওপর অনেকটাই নির্ভরশীল।

প্রকল্পটি ২০১৯ সালের জানুয়ারিতেই স্থগিত করার ইঙ্গিত দিয়েছিল হিটাচি। কিন্তু সম্প্রতি টোকিওভিত্তিক ইলেকট্রনিকস জায়ান্টটি মনে করছে, নির্মাণ ব্যয় বৃদ্ধিসহ আরও কিছু কারণে এ প্রকল্প বাস্তবায়ন অসম্ভব। 
দু-একদিনের মধ্যে অফিশিয়াল মিটিং শেষে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে বলে একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে। সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হলে তা যুক্তরাজ্য সরকারকে জানিয়ে দেয়া হবে। 

ওয়ালেসের অ্যাংলেস দ্বীপে দুই রিঅ্যাক্টরবিশিষ্ট একটি পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের পরিকল্পনা করছিল হিটাচি। একটি ব্রিটিশ কোম্পানির মাধ্যমে হিটাচি ২০১২ সালে তা ক্রয় করেছিল। ২০২০ সালের মাঝামাঝিতে কার্যক্রম শুরুর পরিকল্পনা ছিল। 

আলোচিত ২ হাজার ৮৩৮ কোটি ডলারের (৩ ট্রিলিয়ন ইয়েন) প্রকল্পটিতে ১ হাজার ৮৯২ কোটি ডলার (২ ট্রিলিয়ন ইয়েন) দেয়ার কথা ছিল যুক্তরাজ্যের। বাকি ৮৫১ কোটি ডলার (৯০ হাজার কোটি ইয়েন) অর্থায়ন করত হিটাচি, জাপান সরকার ও বেসরকারি খাত। 

মূলত নির্মাণ ব্যয় বৃদ্ধি এবং কভিড-১৯ নিয়ন্ত্রণে নেয়া বিভিন্ন নিরাপত্তামূলক পদক্ষেপের কারণে ব্যয় বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন খরচ বেড়ে যাওয়ার কারণে প্রকল্পটি স্থবির হয়ে পড়েছে।

যদিও হিটাচি এ ইঙ্গিতও দিয়েছে যে যদি যুক্তরাজ্য সরকার নতুন প্রস্তাব দেয় প্রকল্পে থাকার বিষয়টি তারা ভেবে দেখবে। এর মধ্যে থাকতে পারে আরো আর্থিক সহায়তা দেয়া। অবশ্য তারা এও বলছে, চলমান পরিস্থিতি বিবেচনায় এক্ষেত্রে তেমন অগ্রগতির আশা করছে না হিটাচি। 

ব্রেকিংনিউজ/এম

bnbd-ads