করোনা নিয়ে রবিবার ভাষণ দেবেন ব্রিটেনের রানি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
৪ এপ্রিল ২০২০, শনিবার
প্রকাশিত: ১১:০৫ আপডেট: ১১:০৫

করোনা নিয়ে রবিবার ভাষণ দেবেন ব্রিটেনের রানি

করোনা ভাইরাসে যুক্তরাজ্যের পরিস্থিতি দিনদিন অবনতি হচ্ছে। প্রতিদিনই বাড়ছে মৃত্যু ও আক্রান্তের সংখ্যা। এমন অবস্থায় এ মহামারী নিয়ে রবিবার জাতির উদ্দেশ্যি ভাষণ দিবন রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ।

জাতির উদ্দেশ্যে রানির এমন সরাসরি ভাষণ খুবই বিরল। প্রতিবছর কেবল বড়দিনের বার্তা দিতেই টিভিতে রানির ভাষণের রেকর্ড সম্প্রচার করা হয়।

কিন্তু এবার করোনা ভাইরাস সঙ্কটের কারণে রানি যুক্তরাজ্য এবং কমনওয়েলথের উদ্দেশে এই বিশেষ ভাষণ দিতে চলেছেন।

রানির ভাষণটি উইন্ডসর প্রাসাদে রেকর্ড করা হয়েছে। এটি রবিবার টিভি, রেডিও এবং স্যোশাল মিডিয়ায় প্রচার করা হবে বলে জানিয়েছে বাকিংহাম প্যালেস।

৯৩ বছর বয়সী রানি এলিজাবেথ তার স্বামী প্রিন্স ফিলিপের সঙ্গে এখন উইন্ডসর প্রাসাদেই থাকছেন। করোনা ভাইরাস থেকে নিরাপদে রাখতে রানিকে মার্চের মাঝামাঝি সময়ে উইন্ডসরে নিয়ে যাওয়া হয়।

দেশটিতে গত মাসে করোনা ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ১৪৪ এ পৌঁছানোর পর রানি চলমান পরিস্থিতি নিয়ে একটি বিবৃতি দিয়েছিলেন।

তাতে তিনি বলেছিলেন, “দেশ এক উৎকণ্ঠা আর অনিশ্চয়তার সময় পাড়ি দিতে চলেছে।”  এ সময়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখার জন্য তিনি চিকিৎসক এবং জরুরি সেবা কর্মীদের প্রশংসাও করেন।

আগামী রবিবার রানি জাতির এ সংকটকালে চতুর্থবারের মতো বিশেষ ভাষণ দেবেন।

এর আগে রানি ২০০২ সালে তার মায়ের মৃত্যুর সময়, ১৯৯৭ সালে প্রিন্সেস ডায়ানার শেষকৃত্যের সময় এবং তারও আগে ১৯৯১ সালে প্রথম উপসাগরীয় যুদ্ধের সময় এমন বিশেষ ভাষণ দিয়েছিলেন। তাছাড়া, ২০১২ সালে রানি তার শাসনকালের হীরক জয়ন্তী পালনের সময়ও টিভিতে ভাষণ দিয়েছিলেন।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় যুক্তরাজ্যে ৬৮৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা একদিনে দেশটিতে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড। এ নিয়ে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ হাজার ৬০৫ জন।

এই ভাইরাসে সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৮ হাজার ১৬৮ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছে ৪ হাজার ৪৫০ জন। যা একদিনে দেশটিতে সর্বোচ্চ আক্রান্তের রেকর্ড। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে ১৩৫ জন। 

এছাড়া যুক্তরাজ্যে বর্তমানে ৩৪ হাজার ৪২৮ জন আক্রান্ত রয়েছে। তাদের মধ্যে ৩৪ হাজার ২৬৫ জন চিকিৎসাধীন, যাদের অবস্থা স্থিতিশীল। আর বাকি ১৬৩ জনের অবস্থা গুরুতর, যাদের অধিকাংশই আইসিউতে রয়েছে।

উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসে বিশ্বজুড়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ৫ হাজার ৯৭৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা এ যাবৎ একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫৯ হাজার ১৪১ জন। 

এই ভাইরাসে বিশ্বজুড়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছে ৮২ হাজার ৯৪১ জন। এটিও একদিনে আক্রান্তের সংখ্যায় সর্বোচ্চ। এ নিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০ লাখ ৯৮ হাজার ৬ জন। এ পর্যন্ত ২ লাখ ২৮ হাজার ৪০৫ জন সুস্থ হয়েছে বাড়ি ফিরেছেন। 

সবমিলিয়ে, বর্তমানে ৮ লাখ ১০ হাজার ৪৬০ জন আক্রান্ত রয়েছে। তাদের মধ্যে ৭ লাখ ৭১ হাজার ২১ জন চিকিৎসাধীন, যাদের অবস্থা স্থিতিশীল। আর ৩৯ হাজার ৪৩৯ জনের অবস্থা গুরুতর, যাদের অধিকাংশই আইসিউতে রয়েছে।

ভাইরাসটি চীন থেকে ছড়ালেও বর্তমানে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ২ লাখ ৭৭ হাজার ১৬১ জন আক্রান্ত হয়েছে। আর মৃত্যু হয়েছে ৭ হাজার ৩৯২ জনের। ইতালিতে ১ লাখ ১৯ হাজার ৮২৭ জন আক্রান্ত হয়েছে, বিপরীতে মারা গেছে ১৪ হাজার ৬৮১ জন। এখন পর্যন্ত করোনায় সবচেয়ে বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে ইতালিতে এবং আক্রান্ত যুক্তরাষ্ট্রে।

এছাড়া স্পেনে এখন পর্যন্ত ১ লাখ ১৯ হাজার ১৯৯ জন আক্রান্ত হয়েছে। আর ১১ হাজার ১৯৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। জার্মানিতে ৯১ হাজার ১৫৯ জন আক্রান্ত, মৃত্যু ১ হাজার ২৭৫। চীনে আক্রান্ত ৮১ হাজার ৬২০, মৃত্যু ৩ হাজার ৩২২। ফ্রান্সে আক্রান্ত ৬৪ হাজার ৩৩৮, মৃত্যু ৬ হাজার ৫০৭। ইরানে আক্রান্ত ৫৩ হাজার ১৮৩, মৃত্যু ৩ হাজার ২৯৪। যুক্তরাজ্যে আক্রান্ত ৩৮ হাজার ১৬৮, মৃত্যু ৩ হাজার ৬০৫ জন।

এছাড়া ভারতে এ ভাইরাসে এখন পর্যন্ত ২ হাজার ৫৬৭ জন আক্রান্ত হয়েছে। আর প্রাণ গেছে ৭২ জনের। পাকিস্তানে এ পর্যন্ত ২ হাজার ৬৮৬ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে এবং ৪৬ জন মারা গেছে। বাংলাদেশে এ ভাইরাসে এখন পর্যন্ত ৬১ জন আক্রান্ত হয়েছে বিপরীতে প্রাণ গেছে ৬ জনের।

এ রোগের কোনো উপসর্গ যেমন জ্বর, গলা ব্যথা, শুকনো কাশি, শ্বাসকষ্ট, শ্বাসকষ্টের সঙ্গে কাশি দেখা দিলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। জনবহুল স্থানে চলাফেরার সময় মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। বাড়িঘর পরিষ্কার রাখতে হবে। বাইরে থেকে ঘরে ফিরে এবং খাবার আগে সাবান দিয়ে হাত পরিষ্কার করতে হবে। খাবার ভালোভাবে সিদ্ধ করে খেতে হবে।

ব্রেকিংনিউজ/এম

bnbd-ads