অক্সিজেনের জন্য করোনা রোগীদের হাহাকার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, বুধবার
প্রকাশিত: ১০:০৪ আপডেট: ১১:১৪

অক্সিজেনের জন্য করোনা রোগীদের হাহাকার

অঙ্কিত সেথিয়া, মুম্বাইয়ের এ বাসিন্দা শুক্রবার নির্ঘুম রাত কাটিয়েছেন। তার রাতের ঘুম হারাম হয়ে গিয়েছিল দরকারি অক্সিজেন সংগ্রহ করতে গিয়ে। মুম্বাইয়ে নিজের ৫০ শয্যার হাসপাতালের জন্যই সেটা করতে গিয়েছিলেন। সে সময় তার হাসপাতালে মাত্র চার ট্যাংক তরল অক্সিজেন ছিল। অথচ হাসপাতালের ৫০টি শয্যার মধ্যে ৪৪টিতেই কভিড-১৯ এর আক্রান্ত রোগী চিকিৎসা নিচ্ছে। তাই জরুরিভিত্তিতে তার অক্সিজেনের দরকার ছিল। অন্যথায় যেকোনো সময় রোগীদের অবস্থা বিপদজনক অবস্থায় পৌঁছাতে পারত।

অঙ্কিত সেথিয়া যে ডিলারদের কাছে থেকে অক্সিজেন সংগ্রহ করেন, তাদের স্টক আউট হওয়ার অবস্থা। রাত ২টার দিকে ১৮ মাইল দূরের এক হাসপাতাল থেকে পাওয়া যায় অক্সিজেনের ২০টি বড় সিলিন্ডার। পরবর্তী ১২ ঘণ্টার জন্য মোটামুটি নিশ্চিন্ত হয়ে হাফ ছাড়েন সেথিয়া। তিনি বলেন, ‘আমরা প্রতিদিনই যুদ্ধ করছি। সেটা যেকোনোভাবে কিছুটা অক্সিজেন সংগ্রহের যুদ্ধ।’

বাতাস থেকে অক্সিজেন সংগ্রহ করে হাসপাতাল ও কলকারখানায় সরবরাহ করে, সারা ভারতে এমন ৫০০টি ফ্যাক্টরি আছে। সম্প্রতি ভারতে লকডাউন তুলে নেয়ার পর থেকে কভিড রোগীর সংখ্যাও বাড়ছে। ফলে হাসপাতালে চাহিদা বাড়ছে অক্সিজেনের। 

এপ্রিলে যেখানে প্রতিদিন ভারতের হাসপাতালগুলোতে অক্সিজেনের চাহিদা ছিল ৭৫০ টন। আর এখন দৈনিক চাহিদা বেড়ে হয়েছে ২৭০০ টন। তাই অক্সিজেন সাপ্লায়াররা হাসপাতালের অর্ডারের চাপে হিমশিম খাচ্ছেন।

অক্সিজেন সাপ্লায়ার ভাট বলেন, সরকার শিগগিরই অক্সিজেনের সঙ্কট কাটাতে ব্যবস্থা না নিলে ভারতের অবস্থা ইতালিতে মহামারির সঙ্কটময় সময়ের মতো হয়ে উঠবে।

ব্রেকিংনিউজ/এম

bnbd-ads