স্যানিটাইজার নাকি সাবান, ব্যবহার করবেন?

স্বাস্থ্য ডেস্ক
২৬ মার্চ ২০২০, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: ০৫:৩০

স্যানিটাইজার নাকি সাবান, ব্যবহার করবেন?

চীন থেকে বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পরই স্যানিটাইজারের ব্যবহার বেড়েছে। কেননা, বিশেষজ্ঞরা করোনা ভাইরাসে মোকাবেলায় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকার পরামর্শ দিয়েছে, যার একটি স্যানিটাইজার দিয়ে হাত ধোয়া।

এর পর থেকেই মানুষ ব্যাপক হারে ছুটছে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের দিকে। কিন্তু ইতোমধ্যে বাজারে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে। বাজারে স্যানিটাইজারের দাম ও সংকট নিয়ে দুশ্চিন্তার অন্ত নেই! তাই বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দিয়েছে সাবান দিয়ে হাত ধুতে। কিন্তু স্যানিটাইজার না সাবান? কোন কি মিলবে পরিত্রাণ?

বর্তমানে বিশ্বের বিভিন্ন গবেষণা সংস্থা ও চিকিৎসকদের মতে, স্যানিটাইজারের তুলনায় অনেক বেশি কার্যকর সাবান-পানি, যা কিনা সহজলভ্য ও সাশ্রয়ী। স্যানিটাইজার ৬০ শতাংশ অ্যালকোহলিক দ্রবণে ভাইরাসকে ধবংস করতে কার্যকর। কিন্তু এর চেয়ে কমে খুব একটা কার্যকর নয়। অন্যদিকে সাবানের পানিও সমানতালে ভাইরাসের আবরণ বা ভাইরাসকে ধবংস করতে সক্ষম।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, হাতের ময়লা দৃশ্যমান হলে সাবান পানি দিয়ে ধুতে হবে। আর দৃশ্যমান না হলে অ্যালকোহলসমৃদ্ধ হ্যান্ড স্যানিটাইজার অথবা সাবান-পানি দিয়ে বারবার হাত ধুতে হবে।

ডা. এ বি এম আব্দুল্লাহ একটি গণমাধ্যমে বলেন, ‘সাবান দিয়ে ২০ সেকেন্ড ধরে হাত ধুলেই করোনাভাইরাস ধ্বংস হবে।’

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সৈয়দ কৌশিক আহমেদ বলেন, ‘হ্যান্ড স্যানিটাইজারের তুলনায় সাবান বেশি কার্যকর। সাবান ও পানি হাতের নাগালে থাকলে স্যানিটাইজারের তুলনায় সাবান ব্যবহার করা শ্রেয়।’

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ভাইরাসের বাইরের আবরণ লিপিড দিয়ে তৈরি। অন্যদিকে সাবান হলো ক্ষার জাতীয় পদার্থ।  ক্ষার লিপিডের সাথে বিক্রিয়া করে লিপিডকে চূর্ণ-বিচূর্ণ করে করোনাভাইরাসকে ধ্বংস করতে সক্ষম। তাই অযথা হ্যান্ড স্যানিটাইজারের পিছে না দৌড়ে সাবান পানি ব্যবহারে আমাদের মনোযোগী হওয়া একান্ত জরুরি।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা নিয়মিত অ্যালকোহলযুক্ত সাবান ও পানি দিয়ে হাত ধোয়ার পরামর্শ দিয়েছে। অ্যালকোহলযুক্ত সাবান দিয়ে হাত ঘষলে হাতে লেগে থাকা ভাইরাসগুলো দুর্বল হযে পড়ে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির হাঁচি-কাশির মাধ্যমে সংক্রমণ ছড়িয়ে যদি এ জীবাণুগুলো কোনো কিছুর ওপর পড়ে তা হলে সেখান থেকেও সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েতে পারে। তাই সে গুলো স্পর্শ করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, স্যানিটাইজার ব্যবহার না করে সাবান ও পানি দিয়ে হাত ধোয়া আরও কার্যকর। তবে সাবান-পানি ব্যবহারের সুযোগ না থাকলে স্যানিটাইজার ব্যবহার করা যাবে। তবে হাতে ময়লা লাগা বা তেলতেলে ভাব থাকলে স্যানিটাইজারের কার্যকারিতা তুলনামুলকভাবে কম হয়।

তারা বলছেন, ভ্রমণের সময় ৬০ থেকে ৭০ শতাংশ অ্যালকোহলযুক্ত স্যানিটাইজার ব্যবহার করা হয়। সংক্রমণ ছড়াতে পারে এমন কিছু স্পর্শ করার পর স্যানিটাইজার ব্যবহার করা ঠিক নয়।

ব্রেকিংনিউজ/ এসএ 

bnbd-ads