উপকূলে আঘাত হেনে দুর্বল হচ্ছে আম্পান, সারাদেশে বৃষ্টিপাত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
২০ মে ২০২০, বুধবার
প্রকাশিত: ০৮:৫৯ আপডেট: ১০:৫৭

উপকূলে আঘাত হেনে দুর্বল হচ্ছে আম্পান, সারাদেশে বৃষ্টিপাত

প্রবল গতিতে সুন্দরবন উপকূলে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় আম্পান। বুধবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে সুন্দরবন সংলগ্ন এলাকায় ৬০-৭০কিলোমিটার গতিতে আম্পান আঘাত হানে। একই সঙ্গে ধীরে ধীরে আঘাতের মাত্রা বাড়িয়ে পশ্চিমবঙ্গ উপকূল থেকে এই ঘূর্ণিঝড় ৯৫ কিলোমিটার দূরে উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। ইতিমধ্যে কলকাতা ও বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকায় তুমুল বৃষ্টি ও প্রবল বেগে ঝড়ো হাওয়া বইছে। ঘূর্ণিঝড় আম্পানের প্রভাবে রাজধানী ঢাকায় বৃষ্টিসহ ঝড়ো বাতাস শুরু হয়েছে। আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, এটি বুধবার বিকেল থেকে সাগর উপকূলের পূর্ব দিকে সুন্দরবন ঘেঁষা পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশ দিয়ে অতিক্রম করছে।

এর প্রভাবে বিকাল ৫টার পর থেকে শুরু সারা দেশের মতো রাজধানী ঢাকাতে শুরু হয়েছে বৃষ্টিসহ ঝড়ো বাতাস। তবে ঝড়ের গতিবেগ জানা যায়নি।

আবহাওয়া অফিসের উপপরিচালক কাওছার পারভীন বলেন, আমরা ৪টা থেকে ৬টার মধ্যে বাংলাদেশে আঘাত হানবে বলে জানানো হয়েছিল। ইতিমধ্যে এটি বাংলাদেশ অতিক্রম করা শুরু করে দিয়েছে। এটি দেশের সুন্দরবন উপকূল দিয়ে ঢুকেছে। এটি অত্রিক্রম করতে চারঘণ্টা লাগতে পারে।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, ঘূর্ণিঝড়টি অতিক্রমের সময় বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ১৬০ থেকে ১৮০ কিলোমিটারের মধ্যে রয়েছে। এটি বিকাল চারটা থেকে রাত আটটার মধ্যে সাতক্ষীরা ও খুলনা অঞ্চল অতিক্রম করবে।

এর আগে আবহাওয়া দফতরের বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ঘূর্ণিঝড় আম্পান বঙ্গোপসাগরে উত্তর-পূর্ব দিকে অগ্রসর হয়েছে। এটি আজ বুধবার দুপুর চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দর থেকে ৪৮০ কিলোমিটার, কক্সবাজার উপকূল থেকে ৪৭০ কিলোমিটার, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ২৯০ ও পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৩২০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল। এ কারণে মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত এবং চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর ও কক্সবাজার উপকূলীয় এলাকাকে ৯ নম্বর বিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

ব্রেকিংনিউজ/এমএইচ

bnbd-ads