এইচএসসি পরীক্ষা পেছাচ্ছে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
২৭ এপ্রিল ২০২০, সোমবার
প্রকাশিত: ০৬:০১ আপডেট: ০৭:৫৩

এইচএসসি পরীক্ষা পেছাচ্ছে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত

দেশে চলমান মহামারি করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে সেপ্টেম্বরের আগে দেশের কোনও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলবে না বলে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘আগে করোনা বিদায় নেবে, তারপরেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলবে। করোনা পরিস্থিতি যদি না বদলায় তাহলে সেপ্টেম্বরের আগে কোনও স্কুল-কলেজ খুলবে না।’

প্রধানমন্ত্রীর এ বক্তব্যের ধারাবাহিকতায় শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্র গণমাধ্যমকে জানিয়েছে, যদি করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হয় তবে সেপ্টেম্বরের আগে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা আয়োজন সম্ভব হবে না। তবে পরিস্থিতি যখনই স্বাভাবিক হবে তার ১৫ দিনের মধ্যেই উচ্চ মাধ্যমিক ও সমমানের এ পরীক্ষার আয়োজন করা হবে। কিন্তু পরিস্থিতি কবে নাগাদ স্বাভাবিক হবে সেটি এখনও অনেকাংশেই অনিশ্চিত।

সোমবার (২৭ এপ্রিল) সকাল ১০টায় সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে রাজশাহী বিভাগের ৮টি জেলার কর্মকর্তাদের সঙ্গে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে ভিডিও কনফারেন্সে মতবি‌নিময় অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার ব্যাপারে এমন ইঙ্গিত দেয়ার পর গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন।

তিনি বলেন, ‘এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা আয়োজন করতে সারা দেশে অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে কেন্দ্র হিসেবে নির্বাচন করা হয়। পরীক্ষার জন্য সেখানে বিপুল মানুষের কর্মযজ্ঞ থাকে। এতে করে বড় ধরনের জনসমাগম তৈরি হয়। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত এত বড় পাবলিক পরীক্ষা আয়োজন করা সম্ভব নয়।’

মাহবুব হোসেন আরও বলেন, ‘এখন তো আমাদের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ। আগে তো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো খুলতে হবে। তারপর পরীক্ষার বিষয়ে সময় নির্ধারণ করা হবে। ফলে যতদিন পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা সম্ভব হচ্ছে না ততদিন পরীক্ষা আয়োজন সম্ভব নয়। সেপ্টেম্বরে স্কুল-কলেজ খোলা হলে পরবর্তী ১৫ দিনের মধ্যেই পরীক্ষা আয়োজন করা হবে।’

এ ব্যাপারে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ একাধিক কর্মপরিকল্পনা তৈরি করছে বলেও জানান তিনি। 

এদিকে ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান মুহাম্মদ জিয়াউল হক জানিয়েছেন, প্রথমত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো খুলতে হবে। এরপর পরীক্ষা আয়োজনের প্রস্তুতি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করা ছাড়া বিকল্প নেই।

গত ১ এপ্রিল থেকে সারা দেশে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা থাকলেও করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে ২২ মার্চই পরীক্ষা স্থগিত ঘোষণা করা হয়। এরপর ঈদুল ফিতরের পর পরীক্ষা আয়োজনের নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছিল শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এবার সেটি পিছিয়ে যেতে পারে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

এদিকে গত শনিবার (২৫ এপ্রিল) একটি দৈনিক পত্রিকাকে দেয়া সাক্ষাৎকারে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, ‘সব মানুষ এখন করোনা ভাইরাসে আতঙ্কে ও অনিশ্চয়তায় রয়েছে। সব স্কুল-কলেজ বন্ধ। শিক্ষার্থীরা দুশ্চিন্তায়। অনলাইন ও সংসদ বাংলাদেশ টেলিভিশনের মাধ্যমে কিছু কিছু ক্লাস চললেও শিক্ষার্থীরা সেভাবে এগিয়ে যেতে পারছে না। বরং কিছুটা পিছিয়ে পড়ছে। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে শিক্ষার্থীদের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে সব ধরনের ব্যবস্থা করা হবে ইনশাল্লাহ্।’

এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সরকারের সব প্রস্তুতিই ছিল। কিন্তু করোনার কারণে পরীক্ষা শুরু করা যায়নি। এখনও আমাদের প্রস্তুতি রয়েছে। শিক্ষার্থীরাও পরীক্ষা দিতে পুরোপুরি প্রস্তুত। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ২ সপ্তাহের মধ্যে নোটিশ দিয়ে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু করা হবে।’

ব্রেকিংনিউজ/এমআর 

bnbd-ads