টঙ্গীতে এসএসসির প্রবেশপত্র পায়নি ৪০ পরীক্ষার্থী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার
প্রকাশিত: ১২:৩৮

টঙ্গীতে এসএসসির প্রবেশপত্র পায়নি ৪০ পরীক্ষার্থী

টঙ্গীর পাগাড় মোহাম্মদ আলী উচ্চবিদ্যালয়ে প্রায় ৪০ জন পরীক্ষার্থী ফরম পূরণ করেও প্রবেশপত্র না পেয়ে চলতি সনে এসএসসি পরীক্ষা দিতে পারেনি। এঘটনায় ভূক্তভোগী পরিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা গতকাল সোমবার বিক্ষোভ করেছেন। 

ভূক্তভোগী জাফর আহমেদ শিবলু, হাবিবুর রহমান সবুজ, সাকিব খান, জোবায়ের হোসেন, তাইফ খানসহ অন্যান্য শিক্ষার্থীরা জানায়, টঙ্গীর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে এসএসসির টেস্ট পরীক্ষায় অকৃতকার্য হওয়া শিক্ষার্থীরা গতকাল সোমবার শুরু হওয়া মূল পরীক্ষায় অংশ নেয়ার জন্য মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে পাগাড় পাঠানপাড়া মোহাম্মদ আলী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন ও ফরম পূরণ করেন। বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা সঠিক নিয়মে ফরম পূরণ হয়েছে এবং যথাসময়ে প্রবেশপত্র পাবে মর্মে ওই বিদ্যালয় থেকে ফরম পূরণ করা প্রায় ৪০ জন শিক্ষার্থীকে জানান। গত এক সপ্তাহ যাবৎ শিক্ষার্থীরা প্রবেশপত্রের জন্য প্রতিদিন বিদ্যালয়ে গেলেও তাদের মিথ্যে আশ্বাস দিয়ে শান্ত রাখা হয়। সর্ব শেষ গত রবিবার তারা বিদ্যালয়ে প্রবেশপত্র আনতে যায়। সারাদিন নানা ছল-চাতুরীর পর তাদের পুনরায় মিথ্যে আশ্বাস ও প্রবেশপত্র প্রাপ্তির শতভাগ নিশ্চয়তা দিয়ে ফেরত পাঠানো হয়। সোমবার সকাল সাতটায় শিক্ষার্থীসহ অভিভাবকরা প্রবেশপত্রের জন্য বিদ্যালয়ে যান। শিক্ষকরা কিছুক্ষণ পরই প্রবেশপত্র নিয়ে আসছে বলে কালক্ষেপণ করতে থাকেন। এক পর্যায়ে প্রবেশপত্র না পেয়ে পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকরা ক্ষোভে ফেটে পড়েন। তারা বিভিন্ন স্লোগান দিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। অবস্থা বেগতিক দেখে প্রধান শিক্ষক বিদ্যালয় থেকে কৌশলে সটকে পড়েন। 

অভিভাবকরা ক্ষোভের সাথে জানান, এ বিদ্যালয়ে প্রায়ই এ ধরনের ঘটনা ঘটে। এই বিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ট শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির লোকজন বিভিন্ন ছল-চাতুরীর আশ্রয় নেয়। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য মাননীয় শিক্ষামন্ত্রীর নিকট আহবান জানান তারা।

এবিষয়ে জানার জন্য পাগাড় মোহাম্মদ আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাইফুল ইসলাম সুমনের মুঠোফোনে ফোন দিলে তা বন্ধ পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আব্দুর রহিম পাঠান জানান, এগুলো দুর্ঘটনাবশত হয়েছে। ৪০জন নয়, তবে পাঁচজন ছাত্রের প্রবেশপত্র পেতে সমস্যা হয়েছে। এ বিষয়ে মঙ্গলবার জরুরি মিটিং ডেকেছি। পরীক্ষার্থীদের অভিভাবকদেরও ডেকেছি, তাদের সমস্ত টাকা পয়সা বুঝিয়ে দেয়া হবে।

ব্রেকিংনিউজ/এমজি

bnbd-ads