যেসব কারণে ব্যাংক চেক ফিরিয়ে দেয়

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, শনিবার
প্রকাশিত: ১২:৫৬ আপডেট: ১২:৫৭

যেসব কারণে ব্যাংক চেক ফিরিয়ে দেয়

চেককে হস্তান্তর যোগ্য ঋণের দলিল বলা হয়। হিসাব বিজ্ঞানের ভাষায় চেক নগদ টাকার শামিল। অর্থাৎ চেক এবং নগদ টাকার মধ্যে তফাৎ করা হয় না। ব্যাংক থেকে অর্থ উত্তোলনের জন্য বা ব্যাংকের মাধ্যমে কাউকে কোনরূপ অর্থ প্রদানের জন্য আমানতকারী চেকের ব্যবহার করে থাকে। এর ব্যবহার বর্তমান কালে এতটাই বৃদ্ধি পেয়েছে যে, সকল শ্রেণির মানুষের নিকট এটা সমানভাবে ব্যবহারযোগ্য।

সাধারণভাবে, আমানতকারী কর্তৃক তার ব্যাংকের উপর নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা প্রদানের জন্য শর্তহীন আদেশ পত্র বিশেষই চেক নামে পরিচিত। আইন অনুযায়ী সবকিছু ঠিক থাকলে যার অর্থ চাহিবামাত্র প্রদানে বাধ্য থাকবে। সাধারণভাবে ব্যাংক কর্তৃক সরবরাহতৃক চেক বইয়ের পাতা যথাযথভাবে পূরণ ও স্বাক্ষর করে এরূপ নির্দেশ পত্র প্রণয়ন করা হয়। আমানতকারী কর্তৃক কোনো চেক ব্যাংকে উপস্থাপিত হওয়ার পর ব্যাংক উক্ত চেকের অর্থ পরিশোধ করতে অস্বীকৃতি জানালে তাকে চেক প্রত্যাখ্যান বলে। এক বা একাধিক ন্যায়সঙ্গত কারণে ব্যাংক চেক পরিশোধ করতে অস্বীকৃতি জানাতে পারে।

১. ব্যাংক হিসাবে চেকে লিখিত উক্ত পরিমাণ টাকা না থাকলে।
২. চেকে আদেষ্টার স্বাক্ষর না থাকলে।
৩. চেকে প্রদত্ত আদেষ্টার স্বাক্ষর অস্পষ্ট হলে।।
৪. চেকে প্রদত্ত স্বাক্ষর ও ব্যাংকে রক্ষিত স্বাক্ষরের মিল না হলে।
৫. চেকে তারিখ না থাকলে।
৬. চেকের তারিখ অস্পষ্ট থাকলে।
৭.চেকে টাকার পরিমাণ উল্লেখ না থাকলে।
৮.চেকে টাকার পরিমাণ অংকে ও কথায় গড়মিল থাকলে।
৯. বাসি চেক হলে।
১০. ভবিষ্যৎ তারিখের চেক হলে।
১১. চেকে হিসাব নম্বর না থাকলে।
১২. এক হিসাবের চেক অন্য হিসাবে ব্যবহার করলে। ১৩. চেকে কাটাকাটি থাকলে এবং নমুনা স্বাক্ষর না থাকলে।
১৪.  চেকে অনুমোদন প্রয়োজন হলে এবং তা না থাকলে।
১৫.  হুকুম চেকে প্রাপকের নাম না থাকলে।
১৫.চেকে আদেষ্টার সীলমোহর প্রয়োজন হলে এবং তা না থাকলে। 
১৬. চেক যথাসময়ে ব্যাংকে উপস্থাপন না করলে। ১৭. দাগকাটা চেক যথানিয়মে উপস্থাপন না করলে। ১৮. চেক ছেঁড়া বা অস্পষ্ট হলে।
১৯. আমানতকারীর ব্যাংকে গচ্ছিত অর্থের উপর ব্যাংকের কোন পূর্বস্বত্ব থাকলে।
২০. একাধিক ব্যক্তির নামে যৌথ হিসাবের ক্ষেত্রে সকল আমানতকারী বা যারা জীবিত আছে তাদের সকলের স্বাক্ষর না থাকলে।
২১.  চেক লেখন কোন নির্দিষ্ট চেকের টাকা প্রদানে নিষেধাজ্ঞামূলক বিজ্ঞপ্তি দিলে। ।
২২. চেক লেখার পর চেক লেখবের মৃত্যু বা আদালত কর্তৃক দেউলিত্বের নোটিস ব্যাংক পেলে।
২৩. আদেষ্টার মস্তিষ্ক বিকৃতির নোটিস ব্যাংক পেলে। ২৪. আমানতকারীর হিসাব থেকে কোন টাকা প্রদানে ব্যাংক আদালত কর্তৃক নিষেধাজ্ঞামূলক কোন বিজ্ঞপ্তি পেলে।
২৫. গ্রাহকের চেক হারানো গিয়াছে মর্মে ব্যাং জ্ঞাত হলে।
২৬. চেকের ধানের স্বত্বে কোন ত্রুটি আছে বলে ব্যাংক পরিষ্কার বুঝতে পারলে।
২৭.  অন্য ব্যাংক শাখার চেক উপস্থাপিত হলে।

ব্রেকিংনিউজ/এমজি

bnbd-ads