নৌযান শ্রমিকদের কর্মবিরতি, চলছে যাত্রীবাহী লঞ্চ

বরিশাল প্রতিনিধি
২০ অক্টোবর ২০২০, মঙ্গলবার
প্রকাশিত: ০৩:৩৩

নৌযান শ্রমিকদের কর্মবিরতি, চলছে যাত্রীবাহী লঞ্চ

নৌ-পথে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজী বন্ধ, খাদ্যভাতা প্রদানসহ১১ দফা দাবি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বরিশালে শুরু হয়েছে নৌযান শ্রমিকদের কর্মবিরতি। 
তবে শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষ্যে আপাতত যাত্রীবাহী নৌযান এ কর্মসূচির বাহিরে রাখা হয়েছে।  

মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) থেকে শুরু হওয়া এ ধর্মঘট দাবি পূরণের বিষয়ে কোন সুরাহা না হওয়া পর্যন্ত চলবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ লঞ্চ লেবার অ্যাসোসিয়েশন ও বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের বরিশাল অঞ্চলের সভাপতি শেখ আবুল হাসেম। 

তিনি জানান, তবে সোমবার দিবাগত রাত ১২টা ১ মিনিট থেকে সকল পণ্যবাহী নৌযান বন্ধ রেখেছে বরিশালের শ্রমিকরা। আর এটি শুধু বরিশালে নয় কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সারাদেশে পণ্যবাহী নৌযান শ্রমিকরা কর্মবিরতি পালন করছে। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত এ আন্দোলন কর্মসূচি চলবে। 

তিনি জানান, ১১ দফা দাবি বাস্তবায়ন না হওয়ায় সারা দেশে একযোগে সবধরণের পণ্যবাহী জাহাজের শ্রমিকরা কর্মবিরতি শুরু করেছে। আর তারপরও আমাদের দাবি বাস্তবায়ন না করে জুলুম-নির্যাতন, হামলা-মামলা করা হলে যাত্রীবাহী নৌযান শ্রমিকরাও কর্মবিরতি শুরু করবে। বরিশালে শ্রমিকদের দাবি আদায়ের এ আন্দোলনে বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা একাত্মতা জানিয়েছেন। 

এদিকে কর্মবিরতির আওতার বাহিরে থাকায় সকাল থেকে বরিশালে আভ্যন্তরীণ রুটের নৌযানগুলো স্বাভাবিক নিয়মে চলাচল করছে।

উল্লেখ্য, এ কর্মবিরতির পক্ষে গত শনিবার সকালে বরিশাল নদী বন্দর থেকে বাংলাদেশ লঞ্চ লেবার অ্যাসোসিয়েশন ও নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের আয়োজন একটি মিছিল বের করা হয়। নৌযান শ্রমিকদের অংশগ্রহণে মিছিলটি নগরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় নদী বন্দরে এসে শেষ হয়। পরে সেখানে সংক্ষিপ্ত সভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ লঞ্চ লেবার অ্যাসোসিয়েশন বরিশাল অঞ্চলের সভাপতি শেখ আবুল হাসেম।

তখন তিনি বলেছিলেন, ১১ দফার দাবির প্রতিটিই শ্রমিকদের জন্য যৌক্তিক। দাবিগুলোর বাস্তবায়ন এখন সকল শ্রমিকরা চায়। তাই দাবি আদায়ে আমাদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

ব্রেকিংনিউজ/এমএইচ

bnbd-ads