বগুড়ায় ১৫ টন চালসহ গুদাম কর্মকর্তা আটক

বগুড়া প্রতিনিধি
২৯ মে ২০২০, শুক্রবার
প্রকাশিত: ০৪:২৭

বগুড়ায় ১৫ টন চালসহ গুদাম কর্মকর্তা আটক

বগুড়ার গাবতলী উপজেলার সাবেকপাড়া সরকারি খাদ্য গুদাম থেকে চাল পাচারের সময় ভারপ্রাপ্ত গুদাম কর্মকর্তা (ওসিএলএসডি) গাজি মো. শফিকুল ইসলাম, চাল ব্যবসায়ী আমজাদ হোসেন শাহেনশাহ ও দারোয়ান ছাদেকুল ইসলামকে আটক করেছে পুলিশ। এসময় জব্দ করা হয়েছে ট্রাকসহ ১৫ টন চাল।

শুক্রবার (২৯ মে) সকাল ১০ টায় গাবতলী উপজেলার সাবেকপাড়া সরকারি খাদ্য গুদাম থেকে চাল পাচারকালে তাদেরকে আটক করা হয়। 

জানা গেছে, শুক্রবার সরকারি ছুটির দিনে সাবেকপাড়া সরকারি খাদ্য গুদাম সংলগ্ন রাস্তায় ট্রাকে চাল লোড করা হচ্ছিল। ট্রাক গুদামের ভিতরে না ঢুকিয়ে বাহিরে রেখে গুদাম থেকে চাল লোড করার বিষয়টি স্থানীয় লোকজন সন্দেহের চোখে দেখে। তারা বিষয়টি পুলিশকে জানায়। পুলিশ সেখানে গিয়ে ট্রাকসহ চাল জব্দ করে। এসময় গুদাম কর্মকর্তা ১৫ টন চালের একটি ডেলিভারি অর্ডার (ডিও) পুলিশকে দেখায়। পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের কথা বলে ভারপ্রাপ্ত খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা (ওসিএলএসডি) গাজী মো. শফিকুল ইসলাম ও ধুনট উপজেলার তারাকান্দি গ্রামের আজাহার আলীর ছেলে আমজাদ হোসেন ওরফে শাহেন শাহকে থানায় নিয়ে যায়। 

এ ব্যাপারে গাবতলী উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রণ হারুন উর রশিদ জানান, ১৫ টন চালের কোন ডিও দেয়া হয়নি। গুদামের স্টক মিলানোর পর এ বিষয়ে বিস্তারিত বলা যাবে। এ ব্যাপারে মামলা দায়ের করা হবে।

এ প্রসঙ্গে গাবতলী সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার সাবিনা ইয়াছমিন জানান, আমাদের কাছে রাতেই সংবাদ ছিল খাদ্য গুদাম থেকে চাল পাচার করা হবে। সেই অনুযায়ী আমরা শুক্রবার সকালে চাল বের করার পর ট্রাকসহ ১৫ টন চাল আটক করেছি। যতদুর জানা গেছে, চালগুলো ধুনট উপজেলার এক ব্যবসায়ীর কাছে বিক্রি করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক সাইফুল ইসলাম জানান, এ ব্যাপারে উপজেলা খাদ্যনিয়ন্ত্রক আব্দুল মজিদকে প্রধান করে ৩ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটির রিপোর্ট পাওয়ার পর ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। এছাড়া ওই খাদ্য গুদাম সিলগালা করা হয়েছে।

ব্রেকিংনিউজ/এমএইচ

bnbd-ads