বেপরোয়া শিক্ষার্থী গ্রেফতার

তরুণীকে ফাঁদে ফেলে ভিডিও ধারণ, অতঃপর ধর্ষণ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
২৬ জানুয়ারি ২০২১, মঙ্গলবার
প্রকাশিত: ০১:২০ আপডেট: ০১:২২

তরুণীকে ফাঁদে ফেলে ভিডিও ধারণ, অতঃপর ধর্ষণ

তরুণীকে ফাঁদে ফেলে শ্লীলতাহানি ও ভিডিও ধারণ করে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে রাফিদ সাদমান (২৫) নামে এক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার (২৫ জানুয়ারি) ভিডিও ধারণ করে ধর্ষণের অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করা হয়। রাফিদ সাউথ ইস্ট ইউনিভার্সিটির ছাত্র বলে ক্যান্টনমেন্ট থানা পুলিশ জানিয়েছে।

ভুক্তভোগীর অভিযোগ, ধারণ করা শ্লীলতাহানির ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়ানোর ভয় দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষণও করেছে ওই যুবক।

ক্যান্টনমেন্ট থানার পরিদর্শক (অপারেশন) সিহাব উদ্দিন বলেন, সোমবার (২৪ জানুয়ারি) রাজধানীর ক্যান্টনমেন্ট থানায় ভুক্তভোগী তরুণীর বাবা বাদী হয়ে মামলা করেন।

মামলায় ক্যান্টনমেন্ট থানাধীন পুরাতন ডিওএইচএসের ৬ নম্বর সড়কের ৮১/এ, বাড়ির বাসিন্দা ও সাউথ ইস্ট ইউনিভার্সিটির আইন বিভাগের শিক্ষার্থী রাফিদ সাদমানকে আসামি করা হয়।

এজাহারে বলা হয়, রাফিদের সঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ওই তরুণীর পরিচয় হয়। এক পর্যায়ে তারা দেখা সাক্ষাতও করেন। গত ৩০ অক্টোবর রাত ৯টার দিকে রাফিদ কৌশলে ডেকে তাকে বাসায় নিয়ে যান। সেখানে কোমল পানীয়ের সঙ্গে নেশা জাতীয় দ্রব্য পান করান। এতে ওই তরুণী অচেতন হয়ে পড়েন। এরপর আসামি রাফিদ তরুণীকে নগ্ন করে ভিডিও চিত্র ধারণ করে।

সেখানে বলা হয়, পরে তরুণীর জ্ঞান ফিরলে তাকে ওই ভিডিও দেখিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করে। এছাড়া কাউকে কিছু না জানানোর জন্য ভয়ভীতি দেখিয়ে পরদিন সকালে তাকে ছেড়ে দেয়। এরপর থেকে প্রায়ই তাকে ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল করার ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করেন। দিনে দিনে রাফিদ বেপরোয়া হয়ে উঠলে ওই তরুণী তার মাকে বিষয়টি জানান।

এক পর্যায়ে রাফিদ ওই তরুণীর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়ে ভাইরাল করে। পরিবারের সদস্যরা বিষয়টি নানাভাবে মীমাংসা করতে ব্যর্থ হয়ে পরে মামলা করেন।

পুলিশ কর্মকর্তা সিহাব উদ্দিন আরও জানান, মামলাটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন এবং পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে রেকর্ড করা হয়েছে। আসামিকে গ্রেফতারের পর সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে। আদালত এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

সোমবার ঢাকা ম্যাট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দেবব্রত বিশ্বাস শুনানি শেষে রিমান্ডের এ আদেশ দেন।

ব্রেকিংনিউজ/টিটি/নিহে

bnbd-ads