ফ্রান্স সরকারকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে: ওলামা লীগ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
২৭ অক্টোবর ২০২০, মঙ্গলবার
প্রকাশিত: ০৩:২০ আপডেট: ০৫:২০

ফ্রান্স সরকারকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে: ওলামা লীগ

ফ্রান্সে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (স.) এর অবমাননার তীব্র নিন্দা জানিয়ে মুসলিম উম্মাহর কাছে ফ্রান্স সরকারকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ আওয়ামী ওলামা লীগ।

মঙ্গলবার (২৬  অক্টোবর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ফ্রান্স সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় হযরত মুহাম্মদ (স.) ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন ও ইসলামের অবমাননার প্রতিবাদে আয়োজিত মানববন্ধনে এ দাবি জানান সংগঠনের নেতারা।  

মানববন্ধনে ওলামা লীগের নেতৃবৃন্দ বলেন, ফ্রান্সে পুলিশি নিরাপত্তা ও রাষ্ট্রের পৃষ্ঠপোষকতায় মুসলমানদের আবেগ-অনুভূতি হৃদয়ের স্পন্দন মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন করে গোটা বিশ্বের মুসলমাদের মারাত্মকভাবে আহত করেছে। ইসলাম ও মহানবীর অবমাননা একটি সভ্য রাষ্ট্রের জন্য কোনভাবেই শোভনীয় হতে পারে না। ওলামা লীগের পক্ষ থেকে আমরা এ ব্যঙ্গ কার্টুন প্রকাশের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। এ ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের মাধ্যমে ফ্রান্স সরকার রাষ্ট্রীয়ভাবে মুসলিম বিদ্বেষ ও হিংসাত্মমূলক পশুত্ব স্বভাবের পরিচয় দিয়েছে। 

ওলামা লীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক  মুফতী শেখ মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘মুসলমানরা ইসলাম বিরোধী সাম্প্রদায়িক অপতৎপরতা বরদাস্ত করবে না। ফ্রান্স সরকার অনতিবিলম্বে ধৃষ্টতাপূর্ণ ব্যঙ্গচিত্র প্রচারণা বন্ধসহ বিশ্ব মুসলিম উম্মার কাছে ক্ষমা চাইতে হবে। অন্যথায়, অহিংস প্রতিবাদের দাবানল বিশ্বে ছড়িয়ে পড়বে। এছাড়া ফ্রান্সের সাথে সকল প্রকার সম্পর্ক বিছিন্নসহ তাদের সবধরণের পণ্যবর্জন করতে বিশ্ব মুসলিম সম্প্রদায় বাধ্য হবে।’ 

তিনি বলেন, ‘সম্প্রতি গোটা বিশ্ব লক্ষ্য করছে ফ্রান্সের সরকার ও দেশটির গণমাধ্যমেও মহানবী হয়রত মুহাম্মদ (স.) ও ইসলাম অবমাননাকর অপতৎপরতার সমর্থন দিচ্ছে। ফ্রান্সসহ বিশ্বের যেসব দেশ ইসলাম ও মুসলমানদের নিয়ে এসব ধৃষ্টতা প্রদর্শন করছে, এতে তাদের দীনতা, অজ্ঞতা ও অসহায়ত্বই প্রকাশ পাচ্ছে।’ 

তিনি আরও বলেন, ‘বিশ্বের বুকে মুসলিম উম্মাহর মনোবলকে ভেঙে দিতেই যুগে যুগে ইসলাম বিদ্বেষীরা ইসলামের উপর বারবার আক্রমণ করেছে। বিশ্বনবীর ব্যঙ্গ চিত্র প্রকাশ তারই ঘৃণ্য অপপ্রয়াসের অংশ।’

এসময় ওলামা লীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব মুফতী মাসুম বিল্লাহ নাফিয়ী বলেন, ‘বিশ্ব যখন মানবতার কল্যাণে ধর্মীয় সম্প্রীতির পথে হাঁটছে। সে জায়গায় ধর্মবিরোধী ফ্রান্স এখন সম্প্রীতিময় বিশ্বকে বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করছে। বিশ্ব মুসলিমদের উস্কানি দিয়ে সম্প্রীতি বিনষ্ট করার নেশায় উম্মাদ হয়ে পড়েছে ফ্রান্স সরকার। ফ্রান্সকে প্রত্যাখান করে বিশ্বকে শান্তির দিকে এগিয়ে নেওয়া সময়ের দাবি।’  

তিনি আরও বলেন, ‘ফ্রান্স সরকার মানুষের বিশ্বাসের অনুভূতির জায়গাটিকে ক্ষতবিক্ষত করছে। বিশ্বাসের স্বাধীনতা বলতে কিছু একটা আছে তাও তারা বোঝে বলে মনে হয় না। ফ্রান্সের সরকারকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে। তা না হলে মুসলমানরা ঐক্যবদ্ধভাবে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবে এবং মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)এর সত্য ও ন্যায়ের বার্তা গোটা বিশ্বে পৌঁছে দেবে।’

মানববন্ধনে আরও বক্তব্য দেন জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগের সভাপতি এম.এ জলিল, ওলামা লীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক ক্বারী মাওলানা মুহাম্মদ আসাদুজ্জামান, মৌলভী খন্দকার আব্দুল হালিম, মাওলানা আলতাফ চৌধুরী, হাফেজ মাওলানা সাইফুল ইসলাম, মুফতী কামাল উদ্দিন, মুফতী আব্দুল আলীম বিজয়নগরী, মাওলানা আনোয়ার শাহ্, মাওলানা হেদায়েত উল্লাহ, মাওলানা ফয়েজুর রহমান, মাওলানা রবিউল আলম রবি, হাফেজ হাফিজুর রহমান, মাওলানা ফরিদ হোসেন ও মাওলানা ইলিয়াস হোসেন চৌধুরী প্রমুখ। 

ব্রেকিংনিউজ/আরএইচ/এসআই

bnbd-ads