হালদায় মা-মাছ ‘নমুনা ডিম’ ছেড়েছে

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি
২২ মে ২০২০, শুক্রবার
প্রকাশিত: ১২:০১

হালদায় মা-মাছ ‘নমুনা ডিম’ ছেড়েছে

দেশে কার্প জাতীয় মাছের একমাত্র প্রাকৃতিক প্রজনন ক্ষেত্র হালদায় মা-মাছ ‘নমুনা ডিম’ ছেড়েছে। বৃহস্পতিবার (২১ মে) রাত ১২টার দিকে জোয়ারের সময় অভিজ্ঞ জেলে ও মৎস্যজীবীরা রুই, কাতলা, মৃগেল ও কালিবাউশ মাছের কিছু নিষিক্ত ডিম সংগ্রহ করেছেন।

হালদাপাড়ে এখন চলছে ডিম থেকে রেণু ও পোনা তৈরির প্রস্তুতি। জেলেদের ধারণা, শুক্রবার (২২ মে) দুপুর পর্যন্ত ভারী বৃষ্টিপাত হলে তারা আশানুরূপ ডিম সংগ্রহ করতে পারবেন।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ও হালদা বিশেষজ্ঞ ড. মো. মনজুরুল কিবরীয়া হালদায় মা মাছ ‘নমুনা ডিম’ ছাড়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, স্থানীয় ডিম সংগ্রহকারী ও মৎস্যজীবীরা জোয়ারের সময় মা-মাছের নিষিক্ত ডিম সংগ্রহ করতে পেরেছেন। এ ধরনের ডিমকে স্থানীয়রা ‘নমুনা ডিম’ বলে থাকেন। মা-মাছ হয়তো প্রাথমিকভাবে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখছে ডিম ছাড়লে পোনা তৈরি করা সম্ভব কিনা। পরিবেশ, প্রতিবেশ ও পানির গুণাগুণের প্যারামিটারগুলো ঠিকঠাক থাকলে মা-মাছ ডিম ছাড়বে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, সাধারণত চৈত্র থেকে বৈশাখ মাসে অমাবশ্যা, পূর্ণিমা ও অষ্টমী তিথিতে প্রবল পাহাড়ি ঢল ও শীতল আবহাওয়ায় কার্প জাতীয় মাছ নদীতে ডিম ছাড়ে। নমুনা ডিম মা মাছের প্রাকৃতিক প্রজননের জন্য প্রস্তুতের আভাস।

মাছ আগে নমুনা ডিম ছেড়ে পরীক্ষা করে নদীতে ডিম ছাড়ার অনুকূল পরিবেশ আছে কিনা। অনুকূল পরিবেশ তৈরি হলেই মা মাছ ডিম ছাড়বে। পাহাড়ি ঢল, ব্রজসহ বৃষ্টি, ঠাণ্ডা আবহাওয়া, পূর্ণিমা, অমবশ্যার তিথিতে মূলত মা মাছ ডিম ছাড়ে, এখন সে ধরনের অনুকূল পরিবেশ আছে।

হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুহুল আমীন বলেন, হালদা নদীতে ডিম সংগ্রহকারীদের জালে কিছু কিছু নমুনা ডিম পাওয়ার খবর পেয়েছি। নদীর কাগতিয়ার মুখ থেকে গড়দুয়ারা নয়াহাট পর্যন্ত বিভিন্ন নৌকার ডিম সংগ্রহকারীরা জানাচ্ছেন, তারা প্রতি জালে ১০০-১৫০ গ্রাম পর্যন্ত ডিম পাচ্ছেন, তাদের ভাষ্যমতে এগুলো নমুনা ডিম। ডিম থেকে পোনা উৎপাদনের জন্য হাটহাজারীর হ্যাচারিগুলো প্রস্তুত আছে বলেও জানান ইউএনও।

ব্রেকিংনিউজ/এসপি

bnbd-ads